বাংলাদেশ এক নম্বর হবে পোশাক রপ্তানিতে : বাণিজ্যমন্ত্রী

0

আলোরপথ ২৪ ডটকম

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ দেশের তৈরি পোশাক রপ্তানি ২০২১ সালে ৫০ বিলিয়ন বা পাঁচ হাজার কোটি ডলারে নিয়ে যেতে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সহায়তা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন । তিনি বলেছেন, বিজিএমইএ যে প্রস্তাব দেবে, সেটি বাস্তবায়নে সর্বাত্মক সহযোগিতা দেওয়া হবে। যেকোনো মূল্যে পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশকে বিশ্বের এক নম্বরে নিয়ে যাওয়া হবে।তিনি ২০১৮ সালের মধ্যে অধিকাংশ পোশাক কারখানার কর্মপরিবেশ উন্নত হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেন ।

তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তোফায়েল আহমেদ। ৭-৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত ঢাকা অ্যাপারেল সামিটের আয়োজনের বিভিন্ন দিক নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এতে লিখিত বক্তব্যে ৫০ বিলিয়ন রপ্তানি আয় অর্জনে সম্মেলনে উঠে আসা বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ তুলে ধরেন বিজিএমইএর সভাপতি আতিকুল ইসলাম। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাণিজ্যমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে সহযোগিতা দেওয়ার কথা বলেন।
তোফায়েল আহমেদ আরও বলেন, ‘রানা প্লাজা ধসের পর এই সম্মেলন করার দরকার ছিল। কারণ, এর মধ্য দিয়ে আমরা বিশ্বকে বোঝাতে পেরেছি, রানা প্লাজাই সবকিছু নয়। বাংলাদেশে অনেক সাফল্যের গল্প আছে।’ তিনি বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে পোশাক রপ্তানিতে ৫০ বিলিয়ন ডলার অর্জন সম্ভব। এটি বিদেশিরা মর্মে মর্মে উপলব্ধি করেছেন।

এর আগে বিজিএমইএর সভাপতি বলেন, অ্যাপারেল সামিটের লক্ষ্য ছিল পোশাক রপ্তানি ৫০ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছানোর জন্য সরকার, বেসরকারি খাত, দাতা সংস্থা, ব্র্যান্ড শ্রমিক সংগঠন সবার অংশগ্রহণে একটি টেকসই পরিকল্পনা গ্রহণ করা। সম্মেলনের নয়টি সেমিনারে এই লক্ষ্য অর্জনের পথে প্রতিবন্ধকতা ও চ্যালেঞ্জগুলো কী কী এবং কীভাবে এগুলো সমাধান করা যেতে পারে, তা উঠে এসেছে। তিনি এই কর্মপরিকল্পনা দিয়ে একটি বই করে প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া হবে বলে জানান ।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সহসভাপতি এস এম মান্নান, শহিদউল্লাহ আজিম, রিয়াজ-বিন-মাহমুদ, সাবেক সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, ফারুক হাসান, অ্যালায়েন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেসবাহ রবিন, অভিনেতা আফজাল হোসেন প্রমুখ।

 

 

Share.

Comments are closed.