ভালো খেলাই আমাদের দায়িত্ব

0

 

 

আলোরপথ ২৪ ডটকম

বেশ ভালোই ঝড় বয়ে যাচ্ছে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের ওপর দিয়ে । প্রথমে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটির শীর্ষ কর্মকর্তারা বহিষ্কৃত হলেন, এরপর তো বিসিবির দায়ের করা মামলার জালেও আটকে গেলেন তাঁরা! তবে দলের ওপেনার তামিম ইকবাল কাল জানালেন, মাঠের বাইরের এসব ঘটনা থেকে প্রভাবিত না হওয়ারই চেষ্টা করছেন খেলোয়াড়েরা
দলের কঠিন সময়ে ফর্ম ধরে রেখে ভালো একটা ইনিংস খেলে ম্যাচ জেতালেন…
তামিম ইকবাল: আমরা হয়তো খুব একটা ভালো সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি না। প্রথমে পাঁচ ম্যাচ জেতার পর চারটি ম্যাচ আমরা হেরে গেছি। তবে আমি নিশ্চিত, পর পর দুটি জয় পেয়ে আমাদের ছেলেরা আবার আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠেছে। ক্রিকেটে যেকোনো কিছুই সম্ভব। সুপার লিগে যারা ওপরের দিকে আছে তারা দু-একটা ম্যাচে খারাপ করলে আমরা আবার ভালোভাবেই লিগে ফিরতে পারব বলে মনে হয়।
দলকে নিয়ে মাঠের বাইরে তো অনেক কিছু ঘটে। মামলাও হয়েছে। এসব ঘটনা দলের পারফরম্যান্সে কতটা প্রভাব ফেলছে এ সম্পর্কে তিনি বলেন।

 

এটা মাঠের বাইরের ইস্যু। এগুলো সব সময়ই থাকে। এ নিয়ে যদি আমরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ি, তাহলে তো হলো না। আমরা পেশাদার ক্রিকেটার। যে কারণে আমাদের দলে নেওয়া হয়েছে আমরা সেটার ওপরই জোর দিচ্ছি। চেষ্টা করছি ভালো খেলার। আসলে ভালো খেললে সবাই তো খুশি থাকে।

তামিম: আমরা নিজেরাই এমন একটা পরিস্থিতি তৈরি করে ফেলেছি যে এখন অন্যের ওপর নির্ভর করতে হচ্ছে। অন্যদের ম্যাচ হারতে হবে। সেই সঙ্গে আমাদেরও কাজগুলোয় ঠিকঠাক থাকতে হবে। যদি পাঁচটি ম্যাচ টানা জিততে পারি, তবে ভালো কিছুই হবে আশা করি।

আম্পায়ারিং নিয়ে অনেক অভিযোগ শোনা গেছে এ সম্পর্কে তিনি বলেন।

তামিম: এসব অভিযোগ খেলোয়াড়দের দিক থেকে আসেনি। কর্মকর্তারা হয়তো ম্যাচে খারাপ কিছু দেখেছিলেন, সে জন্যই হয়তো অভিযোগ করেছেন। খেলোয়াড়দের এখানে কোনো ভূমিকা নেই। তা ছাড়া আমি ওই ম্যাচগুলোয় ছিলামও না। আমার মন্তব্য করাটা ঠিক হবে না। আমি দর্শকের মতো একটা ম্যাচ দেখেছি। এই জিনিসটা নিয়ে তাই কোনো মন্তব্য করতে চাই না।

বহিষ্কারাদেশের কারণে তিনজন গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তা দলের সঙ্গে নেই। এঁদের মধ্যে স্বয়ং ক্লাবের চেয়ারম্যানও আছেন। এতে কি কোনো সমস্যা হবে কিনা এ সম্পর্কে তিনি বলেন।

তামিম: আমরা নিজেদের মধ্যে এটা নিয়ে আলোচনা করেছি। আমাদের দায়িত্ব ভালো খেলা। আমরা সবাই এটা নিয়ে কথা বলেছি। মাঠের বাইরে অনেক কিছুই হয়। সেগুলোর প্রভাব যেন আমাদের ওপর না পড়ে। এসব যদি প্রভাব ফেলে, তাহলে খেলোয়াড়দের জন্যও  তা ভালো না। আমরা একসঙ্গে হয়ে চেষ্টা করছি যেন মাঠের বাইরের বিষয়গুলো আমাদের মধ্যে প্রভাব না ফেলে। মাঠে আমাদের যে কাজগুলো আছে, সেগুলো ঠিকমতো করাই আমাদের লক্ষ্য।

 

Share.

Comments are closed.