Visit Us On TwitterVisit Us On FacebookVisit Us On GooglePlusVisit Us On PinterestVisit Us On YoutubeVisit Us On Linkedin

বৃহস্পতি দর্শন হবে আজ সন্ধ্যাকাশে

0

আলোরপথ২৪.কম

আজ শুক্রবার সূর্য ডুবলেই পূর্ণিমার সন্ধ্যাকাশ জুড়ে ভেসে উঠবে সৌরমণ্ডলের বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতি৷ উত্তর-পূর্বে বা ঈশান কোণে৷ গোটা আকাশপথ পাড়ি দিয়ে শনিবার ভোর ৫টা ৪৭ মিনিটে অস্ত যাবে পশ্চিমাকাশে৷ ঔজ্বল্য সবচেয়ে বেশি হবে মধ্যরাতে, ১১টা ৫০ মিনিটে৷ মাঝ আকাশে তখন তার অবস্থান হবে পূর্ণচন্দ্রের পাশেই৷ পূর্ণিমার মাঝরাতে মধ্যগগনে পাশাপাশি চাঁদ ও বৃহস্পতির এই যুগলসঙ্গম, সে এক অপার্থিব সৌন্দর্য– বলছেন বিড়লা তারামণ্ডলের জ্যোতির্বিজ্ঞানী গৌতম শীল৷
কেন ঘটবে এমনটা?
সৌরজগতের নিয়মে সূর্যকে একবার প্রদক্ষিণ করতে বৃহস্পতির লাগে প্রায় ১২ বছর৷ জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, স্বাভাবিকভাবেই প্রতি ছয় বছরে সে পৃথিবীর পাশে চলে আসে৷ আরও সঠিকভাবে বলতে গেলে এই দিনটিতে সূর্য ও বৃহস্পতির মাঝে অবস্থান করে আমাদের পৃথিবী গ্রহ৷ তিনজনেই থাকে এক সরলরেখায়৷ সেই সৌর ক্যালেন্ডার মেনেই আজ শুক্রবার দুজনের ‘মিলন লগ্ন’। যে ঘটনা ফের ঘটবে ২০১৯ সালে ৷
এক সরলরেখায় অবস্থিত পৃথিবীও বৃহস্পতির এই নৈকট্য একধরনের ‘গ্রহণ’-ই বটে! চন্দ্রগ্রহণের সময় এমনটাই ঘটে৷ এদিন বৃহস্পতির সঙ্গে পৃথিবীর দূরত্ব দাড়াবে মাত্র ৬৫০ মিলিয়ন বা ৬৫ কোটি কিলোমিটার৷ এত কাছাকাছি আনার কারণেই সৌরজগতের এই পঞ্চম গ্রহকে পৃথিবী থেকে খালি চোখে দেখা যাবে ।
এই নৈকট্যে আসার সুযোগে আজ শুক্রবার টেলিস্কোপে বৃহস্পতি দেখার আয়োজন করেছে বিড়লা তারামণ্ডল কর্তৃপক্ষ৷ তারামণ্ডলের প্রযুক্তি আধিকারিক গৌতম শীল জানাচ্ছেন, ‘বৃহস্পতি দর্শন-রেখার মধ্যে সরাসরি দেশের যে শহরগুলি পড়ছে, তার অন্যতম কলকাতা। ফলে অন্য অনেক জায়গার তুলনায় কলকাতা থেকে বৃহস্পতিকে অনেক স্পষ্টভাবে দেখা যাবে৷ জ্যোতির্বিজ্ঞানে উৎসাহীদের কাছে এ এক দুর্লভ মুহূর্ত।’ তারামণ্ডল-সূত্রে খবর, সেই সুযোগকে পূর্ণ ব্যবহার যাতে মানুষ করতে পারেন, সে জন্য দুটি টেলিস্কোপের সাহায্যে বৃহস্পতি দর্শনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রথমটি ১০ ইঞ্চি ব্যাসার্ধের সেলেস্ট্রন টেলিস্কোপ৷ দ্বিতীয়টি .২৫ ইঞ্চি ব্যাসার্ধের কার্ল জেইস টেলিস্কোপ ৷ তবে সারা রাত আকাশে বৃহস্পতিকে দেখা গেলেও তারামণ্ডল থেকে বৃহস্পতি দর্শন করা যাবে সন্ধ্যা ছটা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। সূত্র: অনলাইন
 

Share.

Comments are closed.