শেষপর্যন্ত ট্যানারি মালিকেরা ক্ষতিপূরণের চেক পেল

0

আলোরপথ২৪.কম

ট্যানারি মালিকেরা শেষপর্যন্ত  ক্ষতিপূরণ পেতে শুরু করেছেন । এই ক্ষতিপূরণ রাজধানীর হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি সাভারের চামড়া শিল্পনগরে স্থানান্তরের জন্য।
গতকাল বৃহস্পতিবার ক্ষতিপূরণের প্রথম কিস্তির চেক দেওয়া হয় চারটি প্রতিষ্ঠানকে । এই প্রতিষ্ঠানগুলো হলো মেসার্স মামুন ট্রেডার্স (২ লাখ ৮২ হাজার ২১৭ টাকা), মেসার্স মক্কা-মদিনা লেদার কমপ্লেক্স (১৪ লাখ ২৭ হাজার ৬৯৮ টাকা), মেসার্স রাজিব লেদার কমপ্লেক্স (২৬ লাখ ৮৫ হাজার ৭১৫ টাকা) এবং মেসার্স ফেন্সি লেদার কমপ্লেক্স (৪৩ লাখ ১৮ হাজার ৩৬৯ টাকা)।
এ অর্থ তাদের প্রাপ্য মোট ক্ষতিপূরণের ১০ শতাংশ।
শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু আনুষ্ঠানিকভাবে মন্ত্রণালয়ে এ চেক হস্তান্তর করেন। এ সময় বিসিক চেয়ারম্যান আহমেদ হোসেন খান, চামড়া শিল্পনগর প্রকল্পের পরিচালক সিরাজুল হায়দারসহ ক্ষতিপূরণ পাওয়া চার প্রতিষ্ঠানের মালিকেরা উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রী পরে সাংবাদিকদের বলেন, চারটি ট্যানারিকে ক্ষতিপূরণের চেক দেওয়ার মাধ্যমে হাজারীবাগ থেকে ট্যানারিশিল্প সরানোর কাজ আরও এগিয়ে গেল। বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোকে পর্যায়ক্রমে ক্ষতিপূরণের টাকা দেওয়া হবে।
শিল্পমন্ত্রী ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে দেশের উদীয়মান চামড়াশিল্পের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে দ্রুত হাজারীবাগের ট্যানারি সাভারে স্থানান্তর শেষ করার তাগিদ দেন ।
জানা গেছে, এ পর্যন্ত ১৭টি ট্যানারির মালিক ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব দিয়েছে। ক্ষতিপূরণ দেওয়া হলো চার প্রতিষ্ঠানকে। বাকি ১৩টির আবেদন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
শিল্পনগর প্রকল্পের কার্যালয় সূত্র বলছে, সংশোধিত প্রকল্প প্রস্তাব অনুযায়ী, শিল্পনগরে বরাদ্দ করা ১৫৫টি প্রতিষ্ঠানের জন্য ক্ষতিপূরণ ঠিক করা হয় ২৫০ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএফএলএলএফইএ) আওতাধীন ৫৫টি ট্যানারি পাবে ১৪০ কোটি ৫৭ লাখ ৪৮ হাজার এবং বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) আওতাধীন ৯৫টি ট্যানারি পাবে ১০৯ কোটি ৩৩ লাখ ২৩ হাজার টাকা। শিল্প মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে ক্ষতিপূরণের টাকা অনুমোদন দিয়েছে।

Share.

Comments are closed.