Visit Us On TwitterVisit Us On FacebookVisit Us On GooglePlusVisit Us On PinterestVisit Us On YoutubeVisit Us On Linkedin

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসক সাংসদদের স্মারকলিপি

0

আলোরপথ টোয়েন্টিফোর ডটকমঃ

চার চিকিৎসক সাংসদ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আহ্বান জানিয়েছেন সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, পেট্রলবোমাসহ সব অরাজনৈতিক কর্মকাণ্ড প্রত্যাহার করে রাজনৈতিক দূরদর্শিতার পরিচয় দেওয়ার । তাঁরা হলেন সাংসদ আ ফ ম রুহুল হক, ইউনুস আলী, হাবিবে মিল্লাত ও এনামুর রহমান।
তাঁরা এ আহ্বান জানান আজ বুধবার দুপুরে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে দেওয়া স্মারকলিপিতে ।খালেদা জিয়া গত ৩ জানুয়ারি থেকে ওই কার্যালয়ে অবস্থান করছেন। চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শাইরুল কবিরের সঙ্গে তাঁদের বাগবিতণ্ডাও হয় স্মারকলিপি দেওয়ার সময়।
পরে গণমাধ্যমে পাঠানো সাংসদ হাবিবে মিল্লাত স্বাক্ষরিত খালেদা জিয়ার বরাবর দেওয়া স্মারকলিপিতে বলা হয়, ‘পেট্রলের আগুনে শুধু দেশের মানুষ পোড়ানো সম্ভব। ধ্বংস করা সম্ভব দেশের ভবিষ্যৎ​ প্রজন্ম ও অর্থনীতিকে। এ ছাড়া আর কিছুই করা সম্ভব নয়। আশা করি, এই কয়েক দিনে আপনি তা অনুধাবন করতে পেরেছেন।’ ২০-দলীয় জোটের ডাকা অবরোধ-হরতালে পেট্রলবোমার আঘাতে ৮৬ জনসহ ১১৯ জন মৃত্যুবরণ করেছে বলেও স্মারকলিপিতে দাবি করা হয়।
এর আগে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ের ফটকের সামনে যান বেলা একটার দিকে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সাংসদ আ ফ ম রুহুল হকের নেতৃত্বে চারজন সাংসদ । তাঁদের দাবি, অবরোধ-হরতালের নামে সন্ত্রাস, পেট্রলবোমা হামলা ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে বিএনপির নেত্রীকে স্মারকলিপি দিতে এসেছেন।
এ সময় শাইরুল কবির তাঁদের বলেন, ‘আপনারা স্মারকলিপি কি প্রধানমন্ত্রীকে দিয়েছেন? আপনারা বার্ন ইউনিটে যাওয়ার কথা বলেন, আপনারা কি পঙ্গু হাসপাতালে গেছেন?’
সাংসদ ও চিকিৎসক হাবিবে মিল্লাত এ সময় বলেন, যাঁরা হরতাল-অবরোধের নামে নৈরাজ্য করেছে, আমরা তাদের কাছে এসেছি। শাইরুল কবির জবাবে বলেন, ‘আপনারা শুধু এখানে এসে নাটক করেন। এটা দুঃখজনক। আপনারা এমন একটি স্মারকলিপি প্রধানমন্ত্রীকে দিয়ে আসেন।’ তখন ওই চিকিৎসকদের সঙ্গে আসা এক ব্যক্তি চিৎকার করে বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দেব, তবে তা আপনাদের দমন করতে।’ এরপর দুই পক্ষের মধ্যে সাময়িক উত্তেজনার পর শাইরুল কবির স্মারকলিপি গ্রহণ করেন। পরে রুহুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিএনপি দাবি করছে, তারা অবরোধে সন্ত্রাস-নাশকতা করছে না। আমরা বলেছি, তাহলে কারা এসব করছে। আমরা বলেছি, আপনারা কর্মসূচি প্রত্যাহার করুন, তারপর দেখব, কারা এসব করছে।’
এ সময় সাংসদ ইউনুস আলী বলেন, ‘আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কর্মসূচি প্রত্যাহার করতে বলেছি। তা না হলে আমরা প্রতিবাদ না প্রতিরোধ করব।’ এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাংসদ হাবিবে মিল্লাত ও এনামুর রহমান ।

 

 

Share.

Comments are closed.