Visit Us On TwitterVisit Us On FacebookVisit Us On GooglePlusVisit Us On PinterestVisit Us On YoutubeVisit Us On Linkedin

একজন কৃষক

0

আলোরপথ টোয়েন্টিফোর ডটকমঃ

সাইদুল ইসলাম, নিজস্ব প্রতিনিধি

কৃষকের জীবন নিয়ে কবিতা লেখেছেন অনেক কবি,গেয়েছেন অনেক গান,রাজিয়া খাতুন চৌধুরী লেখেছেন তেমনি একটি কবিতা-

একজন কৃষক

সব সাধকের বড় সাধক আমারদেশের চাষা,
দেশ মাতারই মুক্তি কামী
দেশের সে যে আশা।
দধীচি কি তাহারচেয়ে সাধক ছিলেন বড়,
পূণ্য অহ হবে নাক সব করিলে ও জড়,
মুক্তি কামী মহা সাধক মুক্ত করে দেশ
সবারে সে অন্ন জোগায় নাইক গর্বলেশ।

বাংলাদেশ ষড় ঋতুরদেশ।প্রতি দু”মাস অন্তর অন্তর এক একটি ঋতু পরিবর্তন হয়।এই ঋতুর পরিবর্তনের সাথে সাথে পরিবর্তন হয় বাংলাদেশের আবহাওয়া।আবহাওয়ার মধ্যে রয়েছে কৃষকের জীবন,বাংলাদেশ কৃষি প্রধানদেশ।এদেশের ৭৫%লোক গ্রামে বাস করে,গ্রামের লোকের মধ্যে ৫৯.৮৪%লোক কৃষি কাজের সাথে জরিত।শহরেরলোকের মধ্যে ১০.৮১%লোকের কৃষি খামার রয়েছে এই খামারের ১৯.১%আয় জিডিপিতে অবদান রাখে।
প্রায় ৮-১০ হাজার বছর আগ থেকে শুরু হয়ে আসছে কৃষি কাজ।কৃষি কাজের মাধমেদেশের ৪৮.১%লোকের কর্ম সংস্থান তৈরি হলেও পরিবর্তন হয়নি কাজের ধারা।আজোও সনাত্মন যুগের ন্যায় গ্রামের কৃষক গরু,লাঙ্গল ও মই দ্বারা চাষাবাদ করে থাকে।চাষ করে ধান,পাট,গম,ভূট্টা,আখ,তুলা,ফুল ও রেষম ইত্যাদি।
দশমিনা উপজেলা সাতটি ইউনিয়ন ঘুরলেদেখা যায় ৬৩২কিলোমিটার কাঁচারাস্থা।এই কাঁচারাস্তার আসে পাশে বাসকরে গ্রামের কৃষক,তারা মরন পনে যুদ্ধকরে চালিয়ে যায় তাদের সংগ্রাম। বিভিন্ন সময় বর্ষার পানি ও নদীর পানিতে তলিয়ে যায় তাদের বাড়ি ঘর ও চাষাবাদের জমি।পানি নামানোর নেই কোন সু-ব্যবস্থা তবুও ক্ষান্ত নেই তাদের কাজের গতি।জীবন বাঁচানোর তাগিদে তারা দিন রাত বৃষ্টির পানিতে ভিজে করে থাকে সংগ্রাম এই সংগ্রামের মাধ্যমে তৈরি হয় তাদের জীবিকা।
দশমিনা উপজেলা বহরমপুর ইউনিয়ানে আদমপুর গ্রামের এক কৃষকের সাথে কথা বললে তিনি বলেন-ত্রিশ বছর যাবৎ কৃষি কাজ করে যাচ্ছি এই কৃষি কাজের আয়ের মাধ্যমে আমার সংসার ও ছেলে মেয়েদেরলেখাপড়া সহ সবকিছু চালিয়া যেতে হয়।কিন্তু অনেক কষ্টে জীবন অতিবাহিত হয়।তবুওছেড়ে যাইনা এই গ্রাম কেননা চারদিকযেন ঘিরে আছে মায়ার আছলে।

Share.

Comments are closed.